কন্যাসন্তান জন্মালেই ১১১টি গাছ লাগানো হয় যে গ্রামে

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on pinterest

উপমহাদেশের সর্বত্র বিভিন্ন রাষ্ট্র ও রাজ্যে যখন কন্যাসন্তানের সংখ্যা বিপদসীমার চারপাশে ঘোরাফেরা করছে, তখন রাজস্থান হাঁটল অন্য পথে। কন্যাভ্রুণ হত্যা বন্ধ করার পাশাপাশি সমাজে তাদের সম্মানরক্ষার জন্য শুরু করল এক অভিনব নিয়ম। রাজস্থানের পিপলান্তারি গ্রামে কন্যাসন্তান জন্মালেই পরিবার থেকে বসানো হয় একাধিক গাছ। শুধু তাই নয়, মেয়েটির ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে তার নামেই চালু করা হয় একটি ‘ট্রাস্ট’। এই অসাধারণ পদক্ষেপ টুইটে ভাইরাল হওয়ার পর সারা দেশের কাছে প্রশংসা কুড়িয়েছে। গ্রামবাসীরা জানিয়েছে, গ্রামের যে পরিবারে কন্যাসন্তানের জন্ম হয় সেখানে সব গ্রামবাসীরা একত্রিত হয়ে মেয়েটির সম্মানে মোট ১১১টি গাছ লাগান। গাছগুলি সাধারণত ফলের গাছই হয়। এর পাশাপাশি গ্রামবাসীরা একসঙ্গে মিলে ২১ হাজার টাকা এবং শিশুটির পরিবারের থেকে ১০ হাজার টাকা নিয়ে, সব মিলিয়ে ৩১ হাজার টাকা ২০ বছরের জন্যে মেয়েটির নামে ফিক্সড ডিপোজিট করে দেওয়া হয়। শর্ত হিসাবে থাকে, তাদের মেয়ের বয়স ১৮ না হওয়া পর্যন্ত তারা তাকে বিয়ে দেবেন না। পাশাপাশি চুক্তিপত্রে উল্লেখ থাকে মেয়েকে পড়াশোনা শেখানোর দায়িত্ব ও মেয়ের জন্মের পর লাগানো ১১১টি গাছের যত্নও তাঁরা নেবেন।

Subscribe to our Newsletter

সম্পর্কিত আরো লেখা সমূহ

//graizoah.com/afu.php?zoneid=3546031