পোষা প্রাণী কি কোভিড-১৯ ছড়াতে পারে?

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on pinterest

বিশ্ব এখন নতুন এক ভাইরাস নিয়ে উদ্বিগ্ন এবং যখন ধারনা করা হচ্ছে বন্য প্রাণী থেকে এই ভাইরাস সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পরেছে তখন আপনার মনে প্রশ্ন জাগতেই পারে আপনার ঘরের পোষা প্রাণী কি কোভিড-১৯ ছড়াতে পারে?

হ্যা প্রিয় পাঠক আজ আমরা জানবো কুকুর, বিড়াল বা অন্যান্য গৃহপালিত প্রাণী করোণাভাইরাস ছড়াতে সক্ষম কিনা। আর এ বিষয়ে বিশেষজ্ঞদের মতামত কী?

তাহলে আমাদের সবার আগে জানতে হবে কুকুর বা বিড়াল এই প্রাণী গুলো কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয় কিনা বা এখন পর্যন্ত এই ভাইরাসে আক্রান্ত কোনো পোষা প্রাণী পাওয়া গিয়েছে কিনা এবং সেটি কতোটা গুরুতর।

কোভিড-১৯ এক ধরনের জুনোটিক রোগ যা বাদুড় এবং পাখি থেকে মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে। এটি গৃহপালিত এবং বন্য প্রাণীদের মধ্যে সাধারণ এবং তাদের কোনও ক্ষতি করে না। করোনা ভাইরাস সাধারণত চার প্রকারের হয়ঃ আলফা, বিটা, গামা এবং ডেল্টা।

আলফা ও বিটা, করোনাভাইরাস স্তন্যপায়ী প্রাণীদের সংক্রামিত করে। গামা ও ডেল্টা, পাখি এবং মাছকে সংক্রামিত করে। কোভিড-১৯ এর আগে ঘটে যাওয়া সার্স এবং মার্স, বিটা করোনা ভাইরাসের অন্তর্ভুক্ত ছিল। কিন্তু, কোভিড-১৯ এর পেছনে করোনা ভাইরাসটি সম্পর্কে এখনও অনেক কিছুই অজানা আমাদের কাছে।

করোনাভাইরাস কে নিয়ে এখন পর্যন্ত বৈজ্ঞানিকভাবে যেসব তথ্য পাওয়া গেছে এবং এর থেকে বাঁচতে হলে আমাদের যেসব করনীয় রয়েছে তার উপর আমার একটি লেখা প্রকাশিত হয়েছে

২৮ ফেব্রুয়ারি হংকং

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কুকুর পাওয়ার প্রথম ঘটনাটি ঘটে চীন নিয়ন্ত্রিত স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল হংক’য়ের একটি বাড়িতে। ৬০ বছর বয়সী ওই নারী করোনায় আক্রান্ত বলে গত ১২ই ফেব্রুয়ারি নিশ্চিত হন চিকিৎসকরা। এরপর আক্রান্ত হয় তার একটি কুকুর। এবার তার পোষা আরেকটি কুকুরের শরীরেও এই ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া যায়। কয়েক দফা পরীক্ষায় ২৮শে ফেব্রুয়ারিতে কুকুরটির দেহে ভাইরাসটির উপস্থিতি পাওয়া যায় বলে কর্মকর্তাদের উদ্ধৃতি দিয়ে জানিয়েছে সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট।

২৮ মার্চ বেলজিয়াম

ভাইরাস বিশেষজ্ঞ স্টিভেন ভ্যান সম্প্রতি ভেটেরিনারি মেডিসিন অনুষদ থেকে একটি বিড়ালে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঘটনা সম্পর্কে জানিয়েছেন। বিড়ালটি তার মালিকের কাছেই থাকত। বিড়ালটির সংক্রমণের উপসর্গ দেখা দেয়ার এক সপ্তাহ আগে তার মালিকের করোনাভাইরাসের উপসর্গ দেখা যায়।

কে কাকে আক্রান্ত করেছিল?

উপরের তথ্যটি জানার পর মনে প্রশ্ন আসা স্বাভাবিক যে, পোষ্য প্রাণী থেকেই কি তারা আক্রান্ত হয়েছিলেন নাকি বরং নিরীহ প্রাণী গুলোই মানুষের দেহ থেকে আসা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিল।

এখন পর্যন্ত জানা গিয়েছে কুকুর এবং বিড়াল এ দুটো প্রাণীতে সংক্রমণের উপসর্গ দেখা দেয়ার এক সপ্তাহ আগে তার মালিকের করোনাভাইরাসের উপসর্গ দেখা যায়। এবং বিশেষজ্ঞরাও ধারনা করছেন তারা তাদের মালিকের থেকেই এই ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন।

পোষা প্রাণী কি কোভিড-১৯ ছড়াতে পারে?

পোষা প্রাণী দেহে সংক্রোমনের লক্ষন গুলো কি কি?

এই ধরনের পোষ্য প্রাণীদেহে করোনায় আক্রান্তের ঘটনা খুব বেশি একটা ঘটেনি বিধায় বিজ্ঞানীদের এ বিষয়ে জানার জন্য আরও বিষদ গবেষণার প্রয়োজন রয়েছে।

সংক্রমিত কুকুরের বেলায় বিজ্ঞানীরা তেমন কোন লক্ষন দেখতে পাননি বলে বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন। বরং তাদের এই ভাইরাস সনাক্ত করার জন্য কয়েকবার কুকুরটিকে তাদের পরিক্ষা করতে হয়েছে। তবে আক্রান্ত বিড়ালটির ডায়রিয়া ও শ্বাসকষ্টর মতো কিছু লক্ষন দেখা দিয়েছিল।

কুকুর, বিড়াল বা অন্যান্য পোষা প্রাণী কি এই ভাইরাস ছড়াতে পারে?

এবার আসা যাক মুল প্রসঙ্গে। এই প্রাণী গুলো করোনাভাইরাস ছড়াতে পারে কিনা তা জানতে আমরা বিশেষজ্ঞদের মতামত জানবো।

বেলজিয়ামের ভাইরাস বিশেষজ্ঞ স্টিভেন ভ্যান বলেন, আমরা বলতে চাই, এটা একটা বিচ্ছিন্ন ঘটনা। মানুষের কাছ থেকে প্রাণীর শরীরে সংক্রমণের ঘটনা সচরাচর ঘটে না। তা ছাড়া প্রাণী থেকে মানুষের সংক্রমিত হওয়ার ঝুঁকিও খুব কম।

একই কথা বলেছেন ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়া, দাভিসের প্রধান ভেটেরিনারি মেডিকেল কর্মকর্তা জেন সাইকেস। তিনি বলেছেন, বিড়াল ও কুকুর করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হতে পারে। তবে তা সচরাচর হয় না। আর প্রাণী থেকে মানুষের শরীরে এই ভাইরাস ছড়ানো সম্ভব কি না, সে ব্যাপারে যথেষ্ট তথ্য এখন পর্যন্ত তাদের হাতে নেই।

এর আগে হংকংয়ে দুটি কুকুরের ক্ষেত্রে করোনাভাইরাস সংক্রমণের যে ঘটনা ঘটেছিল তা পূর্ণ সংক্রমণ ছিল না। গবেষকেরা জানান, একটি কুকুরের নাকে করোনাভাইরাস ছিল। তবে বিড়ালটির ক্ষেত্রে যে মাত্রায় করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে, আর যে উপসর্গ দেখা গেছে, তাতে পূর্ণ সংক্রমণ ঘটেছে বলে ধরা যায়।

এই সংক্রমনের জোরে ঘটে যাওয়া কিছু দুঃখজনক ঘটনা

করোনা ভাইরাস প্রাণী থেকে মানুষে ছড়িয়ে পড়ে- এ ধারণার কারণে প্রাণী হত্যার হিড়িক পড়েছে। ভাইরাসের বিস্তার রোধ করতে অনেক মানুষ নিজের পোষা প্রাণীদের মেরে ফেলেছেন। চীনের বিভিন্ন সড়কের বিভিন্ন স্থানে মৃত কুকুর-বিড়াল চোখে পড়েছে।

source: Daily Mail

চীনের হুবেই প্রদেশের তিয়ানজিন শহরে একটি কুকুরের রক্তাক্ত মরদেহ পাওয়া গেছে। ধারণা করা হচ্ছে, বহুতল ভবনের একটি ফ্ল্যাটের ওপর থেকে নিচে ফেলে তাকে হত্যা করা হয়েছে।

যদিও পোষা প্রাণী থেকে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পরার কোন প্রমান পাওয়া যায়নি। তবে আপনারও কিছু সচেতনতা প্রয়োজন। পোষা প্রাণী স্পর্শ করার পর আপনার হাত সাবান দিয়ে ভাল করে ধুয়ে নিন। তাদেরও নিয়মিত পরিষ্কার রাখুন।

Subscribe to our Newsletter

সম্পর্কিত আরো লেখা সমূহ