অবিশ্বাস্য ৮টি দামি খাবার!

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on pinterest

খেতে আমরা সবাই কম বেশি পছন্দ করি। পছন্দের একটি খাবার বা নতুন কোন খাবারের প্রতি আমাদের আগ্রহের শেষ নেই। ভাবতে পারেন, শুধু খবার খেতেই কেউ কেউ একদেশ থেকে অন্যদেশে চলে যায়!

আবার এর উল্টো পিঠ ও রয়েছে। এই বিশ্বে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ অনাহারেও থাকে। সেখানে খাবার নিয়ে বিলাসিতা অস্বাভাবিকই বটে।

তাহলে মনে প্রশ্ন আসতেই পারে যে খাবারের এক চামচের মূল্যই ১ লাখ টাকা তাহলে সে খাবারটা আসলে দেখতে কেমন বা কি দিয়ে এটি বানান হয়েছে।

চলুন জেনে নেওয়া যাক বিশ্বের সবচেয়ে দামি ৮ টি খাবারের নাম ও পরিচিতি।

১) Gold Laced Caviar

দর্শক ক্যাভিয়ার হচ্ছে এক প্রকার মাছের ডিম | এমনিতেই ক্যাভিয়ার অনেক দামী একটি খাবার | আর অস্ট্রেলিয়ার এই ব্যক্তি ক্যাভিয়ারের এই মূল্যকে অনেক বাড়িয়ে দিয়েছেন ৷ উনি হোয়াইট ডাঙ্গা মাছের ডিমের মাধ্যমে এই খাবার তৈরি করে থাকেন | তিনি ক্যাভিয়ার কে পাস্তার সাথে মিশিয়ে এরমধ্যে গোল্ড ফ্লিক্স আর এর মধ্যে আরও দুষ্প্রাপ্য এবং মূল্যবান গোল্ড ক্লে ব্যবহার করেন | এই খাবারের এক কেজির মূল্য হচ্ছে 84 লক্ষ টাকা | তার মানে হচ্ছে এই খাবারের এক চামচ খেতে গেলে আপনাকে খরচ করতে হবে 1 লাখ টাকা | এরকম খাবার কোন পাগল ব্যক্তি ছাড়া অন্য কেউ ক্রয় করবে না। তবে বিলগেটস হলে ভিন্ন কথা |

২) Posh Pie

অস্ট্রেলিয়ার শহর সিডনিতে পৃথিবীর সবচেয়ে দামি পাই বানানো হয় ৷ এই খাবার অস্ট্রেলিয়ার একজন জনপ্রিয় শেফ বানিয়ে থাকে ৷ পৃথিবীর এই অদ্ভুত খাবারটি লর্ড ডুডলে হোটেলে খেতে পারবেন | এই খাবারটি গরুর মাংস দুটি অস্ট্রেলিয়ান কাঁকড়া এবং দু’টি লিকুইড গ্রেঞ্জ এর বোতল এর সাথে বানানো হয় ৷ এই posh pie এর একটি সিঙ্গেল পিস এর মূল্য হচ্ছে 19 লাখ টাকা ৷ এত দাম শুনে হয়তো আপনিও বলবেন এর মধ্যে কি স্বর্ণ দেওয়া হয় নাকি ? এই প্রশ্নের উত্তরে আমি বলব এর মধ্যে বিশুদ্ধ জার্মান গোল্ডলিফ ব্যবহার করা হয়ে থাকে ৷ আমার মত এই অদ্ভুত খাবার কোন বোকা ব্যক্তি ও খাবেনা ৷ আপনারা কি বলেন বন্ধুরা?

৩) Chocolate Pudding

দর্শক চকলেট পুডিং তো খুব সাধারন একটি খাবার | কিন্তু এই হোটেলে পৃথিবীর সবচেয়ে দামি চকলেট পুডিং পাওয়া যায় ৷ এই খাবার তৈরি করার জন্য এই হোটেলে পৃথিবীর সবচেয়ে দামি চকলেট ব্যবহার করা হয়ে থাকে I এই চকলেট টিকে তারা একটি অসাধারণ সেফ দিয়ে একটি ডিম্বাকৃতি তৈরি করে ফেলে ৷ তারপরে সেই ডিমের উপর শ্যাম্পেইন জেলির পুডিং দেওয়া থাকে I আর এর মধ্যে বিশুদ্ধ গোল্ডলিফ রাখা হয় | এই পুডিং এর দাম হচ্ছে 56 লাখ টাকা | আমার মতে এত টাকা দিয়ে আপনি আপনার সারা জীবনের খাবার কিনতে পারবেন ৷

৪) Westin Hotel Bagel

নিউইয়র্ক শহরে বাগেল খুবই পছন্দের একটি খাবার | এটিকে আপনি প্রায় সব জায়গাতেই পাবেন | সাধারণ কোনো বাগেল 1 থেকে 2 ডলার এর মধ্যে পাওয়া যায় | কিন্তু নিউইয়র্ক এর ওয়েস্টিন হোটেলে আপনি পৃথিবীর সবচেয়ে দামি বাগেল পাবেন | এ ধরনের বাগেল কে প্রথমে কেটে হোয়াইট চিজ লাগানো হয় তারপর বেলি জেলি গোল্ডলিফ এর সাথে মিশিয়ে এ ধরনের বাগেল তৈরি করা হয় । আর এই খাবারটি কে কেবল অর্ডার দিলেই তৈরি করা হয় ৷ আর এটিকে ক্রয় করার জন্য আপনাকে অবশ্যই 24 ঘন্টা আগে অর্ডার দিতে হবে ৷ এই খাবারের মূল্য হচ্ছে 1 লাখ 60 হাজার টাকা ৷

৫) Golden Chicken Wings

দর্শক এই ভিন্নধর্মী চিকেন ফ্রাই একজন বিখ্যাত রাঁধুনি বানিয়েছেন | এই চিকেন ফ্রাই টি 24 ক্যারেট গোল্ডের আবরণ দিয়ে তৈরি করা হয় I এটি বানানোর আগে কোকোনাট বাটার ও মধুর মিশ্রণ করার পর 24 ঘন্টা যাবত ঝাল এবং মিষ্টি মিশ্রণের মধ্যে ডুবিয়ে রাখা হয় । তারপর এরমধ্যে 24 ক্যারেট গোল্ডের বাটা দেওয়া হয় এবং তার পরেই একে ভাজা হয়ে থাকে | এই অসাধারণ খাবারটি আপনি 1 লাখ 60 হাজার টাকা দিয়ে কিনতে পারবেন |

৬) Fleor Burger

বলা হয় যে লাস ভেগাসে যা পাওয়া যায় না তা পৃথিবীর কোথাও পাওয়া যায় না ৷ লাস ভেগাসের এই রেষ্টুরেন্টটি পৃথিবীর সবচেয়ে দামি বার্গার তৈরি করে । ইউনিক বার্গার টি সেখানকার একজন জনপ্রিয় রাধুনী তৈরি করে | এই বার্গারটি এতটাই দামি যে এটিকে রেস্টুরেন্টে নয় বরং কোন জাদুঘরে রাখা উচিত | কারণ বার্গার এর প্রধান উপাদান হচ্ছে গরুর মাংস ব্ল্যাক রাফেল এবং ফুইজ গ্রাস হয়ে থাকে এবং এবং এই বার্গারকে ১৯৯৫ সালে সর্বপ্রথম বানানো হয়েছিল | এই বার্গার কে ওয়াইন এর সাথে গরম গরম পরিবেশন করা হয় | সম্পূর্ণ একটি বার্গারের প্যাকেজ আপনি চার লাখ টাকা দিয়ে কিনতে পারবেন |

৭) Golden Pizza

পৃথিবীর সবচেয়ে ছোট দেশের মধ্যে মেলটার রাজধানী ভ্যালেটা তে আপনি একটি ইউনিক এবং লাক্সারিয়াস খাবার খেতে পারবেন | এখানে অবস্থিত MARGOS হোটেলে স্বর্ণ দিয়ে পিজ্জা বানানো হয় | জি হ্যাঁ দর্শক ঠিক শুনেছেন l এই পিজ্জার প্রধান উপাদান হচ্ছে “ফাইন অর্গানিক বাফেল” I সাদা টাফেল জিনিস ব্যবহার করা হয় এবং 24 ক্যারেট পিওর স্বর্ণের পাতা ব্যবহার করা হয় | এই পিৎজা কেবলমাত্র মে মাস থেকে অক্টোবর মাস পর্যন্ত অ্যাভেলেবল থাকে I কারণ বছরে কেবলমাত্র এই কয়েক মাস ফ্রেশ ট্রাভেল উৎপাদন হয় ৷ এই পিজ্জার মধ্যে কেবলমাত্র ফ্রেশ ভেজিট্যাবল ব্যবহার করা হয় ৷ আর এই অসাধারণ পিজ্জা টিকে আপনি কেবল 3 লাখ 87 হাজার টাকা দিয়ে কিনতে পারবেন |

8) Zillion Dollar Lobster Frittata

দর্শক অদ্ভুত খাবারের নামটা অনেক বড় কিন্তু এর সাইজ টা অনেক ছোট | এই খাবারটি নরমা রেস্টুরেন্ট এ বানানো হয় | এর মধ্যে দুটি দামি জিনিস ব্যবহার করা হয় | যার কারণে এর দাম অনেক বেড়ে যায় | এই খাবারে গলদা চিংড়ি মাছের ডিম ব্যবহার করা হয় | আর এর মধ্য থেকে সেই মাছের ডিমের দাম হচ্ছে এক লাখ 60 হাজার টাকা ৷ আর এই পুরো অমলেট টিকে আপনি 3 লাখ 20 হাজার টাকা দিয়ে কিনতে পারবেন ৷ আমার হিসেবে আপনি পুরো টাকাটা দিয়ে ঘরে বসে সারা জীবন অমলেট তৈরি করে খেতে পারবেন |

Subscribe to our Newsletter

সম্পর্কিত আরো লেখা সমূহ